মঙ্গলবার , ৩০ আগস্ট ২০২২ | ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

কংগ্রেস সভাপতি পদে লড়ার পরিকল্পনা শশী থারুরের

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
আগস্ট ৩০, ২০২২ ১২:৫৮ অপরাহ্ণ

কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচনে ভোটে লড়বেন শশী থারুর। আগে থেকেই চলা জল্পনা-কল্পনা আরো উসকে দিলেন খোদ তিরুবনন্তপুরমের সংসদ সদস্য নিজেই।

মালয়ালাম দৈনিক মাতৃভূমির জন্য কলম ধরে গ্র্যান্ড ওল্ড পার্টিতে অবাধ ভোটের দাবি তুলেছেন থারুর। যা দেখে অনেকেই বলছেন- এবার তার টার্গেট কংগ্রেস সভাপতির পদ।

ভোটে লড়বেন কি না, দ্রুতই সেই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করবেন এই কংগ্রেস নেতা। ২০২০ সালে কংগ্রেসের সাংগঠনিক সংস্কার চেয়ে যে ২৩ বিক্ষুব্ধ নেতা সোনিয়া গান্ধীকে চিঠি দিয়েছিলেন, তাদের মধ্যে অন্যতম শশী থারুর।

কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার পর আরেকবার সাংগঠনিক সংস্কারের প্রশ্ন কংগ্রেস সংসদ সদস্যদের। মালয়ালাম দৈনিকে তিনি লিখেছেন, কংগ্রেসের পুনরুজ্জীবনের জন্য নতুন সভাপতি নির্বাচন খুবই প্রয়োজন।

তাহলে কী কংগ্রেস সভাপতির পদে লড়াই করবেন? সেই প্রশ্নের উত্তরে অবশ্য এখন পর্যন্ত মুখ খোলেননি শশী।

চলতি বছরের ১৭ অক্টোবর কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচন। সদ্য কংগ্রেসত্যাগী গুলাম নবি আজাদ অবশ্য সোনিয়া গান্ধীকে লেখা চিঠিতে সাংগঠনিক নির্বাচনকে প্রহসন বলেই কটাক্ষ করেছিলেন।

সেখানে দাঁড়িয়েই অবাধ ভোটের দাবি তুললেন থারুরও। তার মতে, আইসিসি এবং প্রদেশ কংগ্রেস স্তরের নেতাদের সভাপতি নির্বাচিত করার সুযোগ দেওয়া উচিত। একমাত্র তাহলেই দলকে কে নেতৃত্ব দেবেন তার বিশ্বাসযোগ্য সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারবে কংগ্রেস।

মালায়লম দৈনিকে থারুর লিখেছেন, তার আশা- এবার কংগ্রেসের সাংগঠনিক নির্বাচনে লড়তে বহু নেতাই এগিয়ে আসতে চাইবেন। ভারত এবং কংগ্রেস দলের জন্য ওই নেতাদের ভাবনা জনতাকে আলোড়িত করবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন তিরুবনন্তপুরমের কংগ্রেস সাংসদ। থারুরের এ কথার জেরেই জোরদার হচ্ছে তার ভোটে লড়ার গুঞ্জন।

সোনিয়া গান্ধী অসুস্থ। ফের দলের সভাপতি হতে সম্মত নন বলে জানিয়েছেন রাহুল গান্ধীও। যদিও গান্ধী পরিবারের বাইরে কাউকে কংগ্রেসের প্রধান করার পক্ষে নন দলের অনেক সিনিয়র নেতাই। ভোটের দিন ঘোষণার পর থেকেই রাহুল গান্ধীকে সভাপতি চেয়ে কথা বলেছেন মল্লিকার্জুন খাড়গের মতো নেতারা। তাহলে কী কংগ্রেসের সভাপতি পদে এবার ভোটাভুটি হবে? মুখোমুখি লড়বেন কেরালার দুই কংগ্রেস সাংসদ?

গুলাম নবি আদাজের পদত্যাগের পরেই রবিবার সভাপতি নির্বাচনের দিন ঘোষণা করেছে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি। ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে মনোনয়ন পর্ব। কংগ্রেস সভাপতি নির্বাচনের জন্য মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন ৩০ সেপ্টেম্বর। ১৭ অক্টোবর ভোট।
সূত্র: এনডিটিভি।

সর্বশেষ - আইন-আদালত