শুক্রবার , ২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

শিক্ষাক্ষেত্রে পিছিয়ে সিলেট: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ২, ২০২২ ১:৩১ অপরাহ্ণ

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, জ্ঞানী-গুণীদের জন্মস্থান এ সিলেট৷ একসময় দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শিক্ষিত মানুষ ছিলেন সিলেটে। দুঃখের বিষয় সম্প্রতিকালে আমরা শিক্ষা থেকে পিছিয়ে গেছি। শিক্ষাক্ষেত্রে সিলেটের অবস্থান অনেক নিচে। যদিও সিলেটের মানুষের আয় ভালো, তবুও আমরা এ ক্ষেত্রগুলোতে অনেক পিছিয়ে আছি। এর অন্যতম কারণ- অবকাঠামোর অভাব, স্কুল-কলেজ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কম।

শুক্রবার (২ সেপ্টেম্বর) সকালে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) ছাত্রদের জন্য নবনির্মিত সৈয়দ মুজতবা আলী হলের বর্ধিতাংশের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সৈয়দ মুজতবা আলীর পরিবারের সঙ্গে আমাদের একটা ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। তিনি একজন দূরদর্শী সম্পন্ন মানুষ ছিলেন। পাকিস্তান সৃষ্টির পর বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা করার জন্য অনেক ত্যাগ তিতিক্ষা ও সংগ্রাম করেছেন তিনি। রাষ্ট্রভাষার এক অগ্রদূত ছিলেন তিনি। আমি জেনে আনন্দিত যে, এ বিশ্ববিদ্যালয়ে সৈয়দ মুজতবা আলীর নামে হল হয়েছে। সেটি প্রথম উদ্বোধন করেন আমার বড় ভাই আবুল মাল আবদুল মুহিত।

তিনি বলেন, তোমরা আন্দোলন কর, কিন্তু শিক্ষা ছেড়ো না। আমার খুব দুঃখ লাগে আমার দলের ছেলে-মেয়েগুলোর জন্য। এরা ছাত্রলীগ-যুবলীগ করে। এরা চাকরিও করতে পারে না, ব্যবসাটাও করতে পারে না। সামান্য ব্যবসা করতে গেলেও তাদের দুর্নাম হয়, চাকরি তারা সহজে পায় না। তবে তারা পলিটিক্সের জ্ঞান অর্জন করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, সৈয়দ মুজতবা আলীর ভ্রাতুষ্পুত্র সৈয়দ রুহুল আমীন, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুল ইসলাম, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক আমিনা পারভীন বক্তব্য রাখেন।

সর্বশেষ - দেশজুড়ে