শনিবার , ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

ইন্দো-বাংলা প্রেসক্লাবে ‘বাংলার মিষ্টি আর বাংলাদেশের ইলিশ’

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২২ ৩:২০ অপরাহ্ণ

শারদীয় দুর্গাপূজার আগেই উৎসবে মাতলো কলকাতায় অবস্থিত ইন্দো-বাংলা প্রেসক্লাব। ‘বাংলার মিষ্টি আর বাংলাদেশের ইলিশ’ শিরোনামে শনিবার (১৭ সেপ্টম্বর) সদস্যদের নিয়ে একটি ঘরোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল সংগঠনটি। সেখানে প্রত্যেক সদস্যের হাতে তুলে দেওয়া হয় বাংলাদেশের ইলিশ ও কলকাতার ঐতিহ্যবাহী মিষ্টি-রসগোল্লা। শারদীয়ার আগে এমন একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পেরে আপ্লুত বাংলাদেশি গণমাধ্যমের ভারতীয় প্রতিনিধিরা।

‘ইন্দো বাংলা প্রেসক্লাব’-এর মুখপাত্র দীপক দেবনাথ বলেন, একে অপরের পাশে থাকাই আমাদের মূল লক্ষ্য। আর কিছুদিন পরেই দুর্গোৎসবে মাতবে কলকাতাবাসী। আমরা চাই এই উৎসবের দিনগুলো সবার কাছে আনন্দময় ও প্রাণবন্ত হয়ে উঠুক।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সদস্যরা নিজেদের মধ্যে মতবিনিয় করেন। সেখানে উঠে আসে নানা প্রসঙ্গ। কীভাবে বাংলাদেশ- ভারত, বিশেষ করে দুই বাংলার সুসম্পর্ক বজায় থাকে, বাংলাদেশি সাংবাদিকরা যদি কলকাতায় কোনো সমস্যায় পড়েন তাহলে ইন্দো-বাংলা প্রেসক্লাব কীভাবে তাদের পাশে থাকবে, সদস্যদের কীভাবে সহযোগিতা করা হবে ইত্যাদি বিষয়ে মতবিনিময় হয়।

গত ১৪ মার্চ কলকাতার মাটিতে আত্মপ্রকাশ ঘটে ইন্দো-বাংলা প্রেসক্লাবের। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে পথচলা শুরু হয় গত ২৪ আগস্ট। সেদিনই বাংলাদেশি গণমাধ্যমের প্রত্যেক কলকাতা প্রতিনিধি সংগঠনের সদস্য পদ নেন।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, এই প্রেসক্লাবের সদস্য হতে আসাম, ত্রিপুরা, দিল্লি থেকেও আগ্রহীরা যোগাযোগ করছেন। উৎসাহ দেখাচ্ছেন ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিনিধিরাও।

jagonews24

প্রেসক্লাবের নিয়ম অনুযায়ী, বাংলাদেশ ও বিদেশি গণমাধ্যমে কর্মরত ভারতীয় প্রতিনিধিরা (ভারতীয় নাগরিক) পাবেন সাধারণ সদস্যপদ এবং যারা বাংলাদেশ বা অন্য কোনো দেশের নাগরিক, তাদের দেওয়া হবে সম্মানসূচক সদস্যপদ। তবে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট গণমাধ্যমের সঙ্গে ন্যূনতম তিন বছর যুক্ত থাকতে হবে।

প্রেসক্লাবের মুখপাত্র বলেন, অনেকেই আগ্রহ দেখাচ্ছেন। তাতে আমরাও উৎসাহবোধ করছি। ভারত এবং বাংলাদেশের সাংবাদিকদের মধ্যে সমন্বয় রেখে খুব শিগগির একটি ওয়েবসাইট চালু করা হবে। সেখানে ক্লাবের কার্যকলাপ, তথ্য এবং কীভাবে সদস্যপদ সংগ্রহ করা যাবে, সে বিষয়ে বাংলা ও ইংরেজি দুই ভাষাতেই সব বিবরণ দেওয়া থাকবে।

অনুষ্ঠান শেষে একে অপরকে মিষ্টিমুখ করিয়ে ভবিষ্যতের জন্য শুভকামনা জানান ইন্দো-বাংলা প্রেসক্লাবের সদস্যরা।

সর্বশেষ - দেশজুড়ে