শনিবার , ১ অক্টোবর ২০২২ | ১৫ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

প্রকাশ্যে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে: মির্জা আজম

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ১, ২০২২ ৩:৫৭ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি বলেছেন, আমাদের বিরুদ্ধে যারা ষড়যন্ত্র করছে তারা প্রকাশ্যে ঘোষণা দিয়ে ষড়যন্ত্র করছে। শেখ হাসিনা বলেছেন তার এবং তার সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। আজকে শেখ হাসিনাকে হত্যা করার ষড়যন্ত্র ও ক্ষমতাচ্যুত করার ষড়যন্ত্র প্রকাশ্যে ঘোষণা দিয়ে করছে।

শনিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

শহরের ২নং রেলগেট এলাকার জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এই বর্ধিত সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই।

বর্ধিত সভায় আগামী ২২ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ এক দিন পিছিয়ে ২৩ অক্টোবর নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে সম্মেলনের স্থান নির্ধারণ নিয়ে উপস্থিত নেতাদের মধ্যে ‘তুমুল বাহাস’ হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন সেখানে উপস্থিত বেশ কয়েকজন নেতা।

তারা জানান, সম্মেলনের জন্য জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক নগরীর দক্ষিণপ্রান্তে অবস্থিত জিমখানা শেখ রাসেল পার্কের প্রস্তাব করলে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো. শহিদ বাদলসহ অধিকাংশ নেতাই তাতে বিরোধিতা করেন। তারা সম্মেলনের জন্য নগরীর ওসমানী স্টেডিয়াম অথবা একেএম সামসুজ্জোহা স্টেডিয়ামের নাম প্রস্তাব করেন। তারা বলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে পুরো জেলা থেকে কমপক্ষে ৩০ থেকে ৪০ হাজার নেতাকর্মীর সমাগম করার পরিকল্পনা রয়েছে। সেখানে শেষ রাসেল পার্কের ধারণক্ষমতা মাত্র ৪-৫ হাজার মানুষের ও সেখানে প্রবেশের রাস্তাটি অত্যন্ত সরু।

তারা বলেন, জিমখানা এলাকাটি বিএনপি-জামায়াত অধ্যুষিত এলাকা হিসেবে পরিচিত। সেখানে এত সংখ্যক নেতাকর্মীর আগমনে তারা সুযোগ নিতে পারে। নেতাদের এ বিতর্কের পর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে পুলিশ সুপারের সাথে আলোচনাসাপেক্ষে সম্মেলনের স্থান নির্ধারণ করার দায়িত্ব দেন।

অপরদিকে বর্ধিত সভায় মির্জা আজম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি ও মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত শক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। আজকে সব খুনিরা ঐক্যবদ্ধ। আমরা জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে ষড়যন্ত্রের ঘ্রাণ পাচ্ছি। সেই ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করার জন্য শেখ হাসিনার নির্দেশে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমরা যারা আওয়ামী লীগ করি আমাদের চেতনা আসছে না। আমাদের চেতনা জাগ্রত করতে হবে। বাংলাদেশে আগামী যে নির্বাচন হবে সেই নির্বাচনকে ঘিরে অনেক ষড়যন্ত্র প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের জাগ্রত হতে হবে। মানুষের কাছে ভোট চাইতে হবে।

বর্ধিত সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু, জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী প্রমুখ।

 

সর্বশেষ - সারাদেশ