শনিবার , ৮ অক্টোবর ২০২২ | ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

নেতাকর্মী নিয়ে আদালতপাড়া ছাড়লেন ভিপি নুর

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ৮, ২০২২ ৮:২১ পূর্বাহ্ণ

ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীদের উপর হামলা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে মিছিলসহ আদালতে উপস্থিত হন ডাকসুর সাবেক ভিপি ও গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর। অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীসহ তিনি অবস্থান নেন ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের গেটের পাশে।

পরবর্তী সময়ে ‘আদালতের প্রতি আস্থা রেখে’ কর্মসূচি সমাপ্ত করে তিনি নেতাকর্মী নিয়ে চলে যান।

এসময় নুরুল হক নূর বলেন, আমাদের ২৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আদালতের প্রতি আস্থা রেখে কর্মসূচি সমাপ্ত করেছি। আদালতের প্রতি অনুরোধ থাকবে, আমাদের ভাইদের প্রতি অবিচার করবেন না, ন্যায়বিচার করবেন। আমাদের ভাইদের মুক্তি না হলে নাগরিক সমাজ, রাজনৈতিক সংগঠন নিয়ে ধারাবাহিক কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

এর আগে মারধর ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে রাজধানীর শাহবাগ থানায় করা মামলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা (ঢাবি) ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি আকতার হোসেনসহ ২৪ জনকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেছে পুলিশ।

শনিবার (৮ অক্টোবর) তাদের হাজির করা হয় আদালতে। এরপর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক মুহাম্মদ আরিফুল হক তপু মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শহিদুল ইসলামের আদালতে হবে আবেদনের শুনানি।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আকরাম হোসেন, মো. সাদ্দাম হোসেন, মো. তসলিম হোসাইন অভি, আব্দুল কাদের, মো. তরিকুল ইসলাম, মামুনুর রশিদ, নাজমুল হাসান, রাকিব, আরিফুল ইসলাম, আসিফ মাহমুদ, তাওহীদুল ইসলাম তুহিন, এইচএম রুবেল হোসেন, ইউসুফ হোসেন, মিজান উদ্দিন, বেলাল হোসেন, ওমর ফারুক জিহাদ, আবু কাউছার, জাহিদ আহসান, মোয়াজ্জেম হোসেন রনি, সানাউল্লাহ, শাহ ওয়ালিউল্লাহ, মো. রাকিব, সাজ্জাদ হোসেন পারভেজ।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার তৃতীয় বার্ষিকীতে শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) সমাবেশের আয়োজন করে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ। সেই সমাবেশে অতর্কিত হামলা চালান ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

এসময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে থাকা চেয়ার ও মাইক ভাঙচুর করেন। পুড়িয়ে দেওয়া হয় ব্যানার-ফেস্টুনও। এতে পণ্ড হয়ে যায় ছাত্র অধিকার পরিষদের ডাকা সমাবেশ।

সর্বশেষ - দেশজুড়ে

আপনার জন্য নির্বাচিত