বৃহস্পতিবার , ৮ ডিসেম্বর ২০২২ | ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

এনবিআর চেয়ারম্যান রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে রাজস্ব আহরণে চ্যালেঞ্জ তৈরি হয়েছে

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
ডিসেম্বর ৮, ২০২২ ২:৫৭ অপরাহ্ণ

চলমান রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে রাজস্ব আহরণে চ্যালেঞ্জ তৈরি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম।

বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় এনবিআর সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই মন্তব্য করেন। জাতীয় ভ্যাট দিবস ও ভ্যাট সপ্তাহ উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে এনবিআর।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, বিশ্ব বা অভ্যন্তরীণ রাজনীতির সঙ্গে রাজস্ব আহরণের সম্পর্ক থাকে। এমন পরিস্থিতে রাজস্ব আহরণে চ্যালেঞ্জ তৈরি হয়। আমরা এটিকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখি। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণেও রাজস্ব আহরণে চ্যালেঞ্জ তৈরি হয়েছে। আমরা রাজস্ব আহরণের প্রবৃদ্ধি ধরে রাখার চেষ্টা করছি। এ চেষ্টা আমরা করবো, যাতে রাজস্ব বিভাগের ঘাড়ে দোষ না আসে।

ভ্যাট অটোমেশনে রাজস্ব কর্মকর্তারা এখনো অভ্যস্ত হননি জানিয়ে তিনি বলেন, ভ্যাট অটোমেশনের ক্ষেত্রে ভ্যাট দাতা ও এনবিআরের কর্মকর্তাদের অনভ্যস্ততা অন্তরায়। এটি ব্যবহারের ক্ষেত্রে সাধারণ ভ্যাটদাতারা এখনো অভ্যস্ত হয়ে ওঠেননি। ভ্যাট অটোমেশন প্রকল্পের সফলতা যাচাইয়ে একটি বৈঠক হবে। তাতে এর সফলতা ও আপগ্রেডেশন নিয়ে আলোচনা হবে।

আইএমএফ ও কর অব্যাহতি প্রসঙ্গে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, কর অব্যাহতি বলা হলেও আমরা সেটাকে বলি লজিস্টিক সাপোর্ট। এ ধরনের অর্থনৈতিক পলিসি সব দেশেই দিয়ে থাকে। আইএমএফ যেটা বলে আসছে, সেটা হলো ভর্তুকি কমানো। নগদ প্রণোদনা ও ভর্তুকি এটা এনবিআরের বিষয় না। ভর্তুকি আসলে এক ধরনের সাপোর্ট। আমরা ভর্তুকিকে সাপোর্টের পর্যায়ে নিয়ে যাবো। কিন্তু যারা এসব পরামর্শ দেয়, তাদের দেশে ভর্তুকি আরও বেশি দেয়। বিশেষ করে জাপান ও ইউরোপে ভর্তুকি ছাড়া কৃষি উৎপাদন হয় না। তারা হয়তো ভিন্ন ফর্মে ভর্তুকি দিয়ে থাকে।

তিনি বলেন, আমরা এসব সাপোর্ট ধাপে ধাপে কমিয়ে আসবো। যাতে আমাদের উৎপাদনে ধস না নামে। সেটা আইএমএফ জানে। আমরা তাদের বোঝাতে সক্ষম হয়েছি, একসঙ্গে সবকিছু মানা যাবে না।

আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম আরও বলেন, একইভাবে এনবিআরও যেখানে করছাড় কিংবা সাপোর্ট দিয়ে আসছে, সক্ষমতা বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে সেখানে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। পলিসি সাপোর্টের ক্ষেত্রে এনবিআর এক জায়গায় স্থির থাকে না। প্রতি বছর বাজেটে সাপোর্ট দিতে পরিবর্তন আনা হচ্ছে।

তিনি বলেন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের আহরিত অর্থের ৩৭ শতাংশেরও অধিক আহরিত হয় ভ্যাট খাত থেকে। গতবারের চেয়ে এ বছর এখন পর্যন্ত রাজস্ব আদায়ে ১৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি রয়েছে। ভ্যাট আদায়ে প্রবৃদ্ধি ১৭ শতাংশের বেশি।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, আগামী ১০ ডিসেম্বর ১২তম ভ্যাট দিবস উপলক্ষে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে সেমিনার ও সেরা ভ্যাটদাতাদের সম্মাননা জানানো হবে। ওই অনুষ্ঠানে ৯ প্রতিষ্ঠানকে ভ্যাট সম্মাননা দেওয়া হবে। ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

২০১১ সাল থেকে ভ্যাট দিবস ও সপ্তাহ পালন করে আসছে এনবিআর। সচেতনতা বৃদ্ধি ও কর দিতে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষে ১০ ডিসেম্বর জাতীয় ভ্যাট দিবস ও ১০ থেকে ১৫ ডিসেম্বর জাতীয় ভ্যাট সপ্তাহ পালন করবে এনবিআর। ভ্যাট দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘উন্নয়নের ভ্যাট নীতি, ভ্যাট দিয়ে গড়ব জাতি’।

এনবিআর জানায়, এসময় নিবন্ধন, রিটার্ন, ই-পেমেন্ট, পেমেন্ট, ক্রয়-বিক্রয়ের হিসাব সংরক্ষণ, চালানপত্র ইস্যু, ইএফডি/এসডিসি মেশিন ব্যবহারের ক্ষেত্রে সরাসরি সার্কেল, বিভাগ ও কমিশনারেট হতে বিশেষ সেবা দেওয়া হবে ভ্যাট প্রদানকারীদের।

সর্বশেষ - সারাদেশ