শুক্রবার , ২০ জানুয়ারি ২০২৩ | ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

গণতন্ত্র হত্যাকারীদের কেউ ভোট দেবে না: মোশাররফ

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
জানুয়ারি ২০, ২০২৩ ৩:৩৩ অপরাহ্ণ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, আজকে যারা গায়ের জোরে ক্ষমতায় রয়েছে— তারা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান, তার পরিবার ও প্রতিষ্ঠিত দলকে ভয় পায়। যে কারণে তারা আমাদের গণতান্ত্রিক কর্মসূচি করতে দিতে চায় না। আওয়ামী লীগের অবস্থান বিএনপির বিরুদ্ধে নয়, জনগণের বিরুদ্ধে।

তিনি বলেন, দেশের মানুষ আজ আওয়াজ তুলেছে, তারা গণতন্ত্র হত্যাকারীদের ভোট দেবে না। যারা দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে তারা অর্থনীতিকে আর মেরামত করতে পারবে না। যারা দেশের বিচারব্যবস্থা ধ্বংস করে দিয়েছে তারা বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ফিরিয়ে দিতে পারবে না।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৮৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত ‘বাংলাদেশ ও গণতন্ত্র’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

পেশাজীবীদের সংগঠিত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আপনাদের বলিষ্ঠ নেতৃত্ব এবং অবদানের মাধ্যমে দেশের জনগণের প্রত্যাশা এ সরকারকে বিদায় করে বিএনপির রাষ্ট্র মেরামতের ২৭ দফা রূপরেখার ভিত্তিতে বাংলাদেশ নির্মাণ করতে হবে।

মোশাররফ হোসেন বলেন, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হলে সরকারকে বিদায় করার কোনো বিকল্প নেই। বিদায় করার জন্য আমরা ১০ দফা কর্মসূচি দিয়েছি। একটি মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ যাতে গঠিত হয় সেজন্য রাষ্ট্র কাঠামো মেরামতের জন্য বিএনপির পক্ষ থেকে ২৭ দফা ঘোষণা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে সফল। যার কর্মজীবনের তিনটি সফলতা তাকে বিশ্লেষণ করা কঠিন। স্বাধীন বিচারব্যবস্থা হচ্ছে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশকে ধ্বংস করেছে। তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দল বিএনপি। জিয়াউর রহমানের প্রতিষ্ঠিত দল মুক্তিযোদ্ধাদের দল। আর আওয়ামী লীগ হলো মুক্তিযুদ্ধের সমর্থক দল।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, তারা (আওয়ামী লীগ) গণতন্ত্র হত্যা করেছিল, সেখানে জিয়াউর রহমান বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছিল। এরশাদ গণতন্ত্র হত্যা করেছিল সেখানে আমাদের নেত্রী এরশাদের পতন ঘটিয়ে সংসদীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে। নির্বাচন যাতে প্রশ্নবিদ্ধ না হয় সেজন্য সংবিধানে তত্ত্বাবধায়ক সরকার সংযুক্ত করেছিলেন।

যেখানে আওয়ামী লীগ সেখানে গণতন্ত্র নেই দাবি করে তিনি বলেন, যেখানে আওয়ামী লীগ আছে সেখানেই গণতন্ত্রকে হত্যা করা হয়েছে। যেখানে বিএনপি সেখানেই গণতন্ত্র পূর্ণ প্রতিষ্ঠার ইতিহাস। অতএব আজকের দিনে মানুষ কিসের সঙ্গে রয়েছে? নেই গণতন্ত্র, সঙ্গে সঙ্গে মানুষের অধিকার নেই, অর্থনৈতিক সংকটে দেশ।

এ সময় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, আবদুল হাই শিকদার, বিএনপির আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আহমেদ তালুকদার প্রমুখ।

সর্বশেষ - দেশজুড়ে