শুক্রবার , ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ১৫ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

চট্টগ্রামে তথ্যমন্ত্রী বিশ্ব উন্নয়নের প্রশংসা করলেও বিএনপি পারে না

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২৩ ৫:০৩ পূর্বাহ্ণ

গোটা বিশ্ব বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির প্রশংসা করলেও বিএনপিসহ তাদের দোসররা প্রশংসা করতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেছেন, বিএনপি ও তাদের দোসররা পদ্মা সেতু দিয়ে পারাপার হয়ে জনসভা করেন। অথচ তারাই বলেন দেশে কোনো উন্নয়ন হয় নাই। তারা ফ্লাইওভারের ওপর দিয়ে চলাচল করে বলেন কিছুই হয় নাই। যারা চোখ থাকতে অন্ধ, কান থাকতে বধির তাদের কেউ আলোও দিতে পারবে না, শ্রবণশক্তিও দিতে পারবে না। আমি আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি, আল্লাহ যেন তাদের হেদায়েত দান করেন।

বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় ৩০তম চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা-২০২৩ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদ আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াত আবার ক্ষমতায় এলে দেশকে জ্বালিয়ে-পুড়িয়ে ছারখার করে দেবে। আজকে দেশ সমৃদ্ধ হচ্ছে, এগিয়ে যাচ্ছে। মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়েছে, ব্যবসা-বাণিজ্যে সমৃদ্ধি আসছে, বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা এখন বিদেশে বিনিয়োগ করছেন, এটি জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার না হলে হতো না। এখানে যদি আবার অন্য সরকার আসে এগুলো সব বন্ধ হয়ে যাবে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন ও এগিয়ে যাওয়া নিয়ে জাতিসংঘের মহাসচিব প্রশংসা করেন, বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট, ভাইস-প্রেসিডেন্ট প্রশংসা করেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট আমাদের স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরপূর্তি উপলক্ষে যে বার্তা পাঠিয়েছেন সেখানে বাংলাদেশের উন্নয়ন বৈশিষ্ট্যের জন্য প্রশংসা করেছেন। আজকের সমগ্র বিশ্ব প্রশংসা করে, কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য বিএনপিসহ তাদের দোসরেরা প্রশংসা করতে পারে না।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের সমৃদ্ধি অব্যাহত রাখতে হলে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। বঙ্গবন্ধুকন্যার হাতে দেশ থাকলে আমরা স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছাতে পারবো। অন্যতায় তা পারবো না।

এফবিসিসিআই ও চট্টগ্রাম শিল্প বণিক সমিতিসহ সব সমিতিকে অনুরোধ জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর সব দেশে উৎসব, পূজা-পার্বণ এলে নিত্যপণ্যের দাম কমে। আমাদের দেশে উৎসব এলে দাম বাড়ে। ঈদ-রোজা-পূজা যেটিই হোক উৎসবকালীন পণ্যের দাম কমানোর মানসিকতা রাখেন ব্যবসায়ীরা।

তিনি বলেন, যারা মজুতদারি করবে তাদের বিরুদ্ধে যেন ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো ব্যবস্থা নেয়। যারা রমজানে পণ্যের দাম কমাবে তাদের ব্যবসায়ী সংগঠনের পক্ষ থেকে উৎসাহ দেওয়া হবে। প্রয়োজনে পুরস্কৃত করা যেতে পারে।

মন্ত্রী বলেন, গত ১৪ বছর ধরে দেশের ব্যবসায়ীরা নির্বিঘ্নে ব্যবসা করেছেন এবং সব ব্যবসায়ীর সমৃদ্ধি হয়েছে। দেশের সমৃদ্ধির সাথে সাথে প্রত্যেক ব্যবসায়ীর সমৃদ্ধি এসেছে।

ড. হাছান আরও বলেন, তখন আমাদের জিডিপির আকার ছিল ৮০ বিলিয়ন ডলার। আজকে সেটি পৌনে ৫০০ বিলিয়ন ডলারে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। মাথাপিছু আয় ছিল ৬০০ ডলার, সেটি ২৮০০ ডলারের ওপরে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। করোনা মহামারির মধ্যে ২০২১ সালে আইএমএফের প্রাক্কলন অনুযায়ী আমরা মাথাপিছু আয়ে ভারতকে ছাড়িয়েছি। মানব উন্নয়ন সূচক, অর্থনৈতিক সূচক, সামাজিক সূচক ও স্বাস্থ্য সূচকসহ সব সূচকে অন্তত সাত বছর আগে আমরা পাকিস্তানকে অতিক্রম করেছি। মানব উন্নয়ন সূচক, সামাজিক সূচক এবং স্বাস্থ্য সূচকে আমরা ভারতকেও অতিক্রম করেছি। অর্থনৈতিক সূচকে মাথাপিছু আয়ের দিক দিয়ে ২০২১ সালে আমরা ভারতকে অতিক্রম করেছি।

চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী, নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এমএ লতিফ এমপি, এফবিসিসিআই সভাপতি মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন ও বাণিজ্য মেলা কমিটির চেয়ারম্যান একেএম আকতার হোসেন প্রমুখ।

সর্বশেষ - সারাদেশ