সোমবার , ১৮ জুলাই ২০২২ | ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

হঠাৎ ওয়ানডে থেকে অবসরের ঘোষণা স্টোকসের

প্রতিবেদক
pappu
জুলাই ১৮, ২০২২ ৪:৪৬ অপরাহ্ণ

মঙ্গলবার ডারহামে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচটি হবে বেন স্টোকসের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে শেষ ওয়ানডে। আজ (সোমবার) এক টুইটে এমন ঘোষণা দিয়েছেন ইংল্যান্ডের তারকা অলরাউন্ডার।

ইংল্যান্ডের পক্ষে ১০৪টি ওয়ানডে খেলেছেন স্টোকস। ৩১ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার নিজেকে কিংবদন্তির কাতারে নিয়ে গেছেন লর্ডসে ২০১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে ম্যাচসেরা পারফরম্যান্স দেখিয়ে। মঙ্গলবার চেস্টার লি স্ট্রিটে নিজের হোম গ্রাউন্ড সিট ইউনিক রিভারসাইডে শেষ ম্যাচটি খেলবেন স্টোকস।

২০১৯ সালে ইংল্যান্ড প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপ জেতার কৃতিত্ব দেখায়। সুপার ওভারে গড়ানো শ্বাসরুদ্ধকর ওই ম্যাচে অপরাজিত ৮৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন স্টোকস।

২০১১ সালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে অভিষেক হয় স্টোকসের। প্রায় ১১ বছরের ক্যারিয়ারে তিনটি সেঞ্চুরিসহ ২৯১৯ রান এবং ৭৪ উইকেট শিকার করেন এই অলরাউন্ডার।

এক বিশাল টুইটবার্তায় স্টোকস তার অবসরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সেই টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘আমি ডারহামে মঙ্গলবার ইংল্যান্ডের হয়ে ওয়ানডেতে নিজের শেষ ম্যাচটি খেলব। আমি এই ফরম্যাট থেকে অবসরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

‘আমার জন্য সিদ্ধান্তটা ভীষণ কঠিন ছিল। ইংল্যান্ডের হয়ে আমার সতীর্থদের সঙ্গে খেলাটা আমি প্রতি মিনিটই উপভোগ করেছি। আমাদের অবিশ্বাস্য এক ভ্রমণ ছিল।’

কিন্তু কেন হঠাৎ অবসরের সিদ্ধান্ত? স্টোকস জানালেন, ব্যস্ত ক্রিকেটের ধকল থেকে বের হতেই একটি ফরম্যাট ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এখন কেবল টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি নিয়ে ভাবতে চান।

স্টোকস তার টুইটে লিখেছেন, ‘সিদ্ধান্তটা কঠিন হলেও এটা মেনে নেওয়া কঠিন নয় যে আমি আমার সতীর্থদের এই ফরম্যাটে শতভাগ দিতে পারছি না। যারা ইংল্যান্ডের এই জার্সিটা পরেন, তাদের কাছ থেকে দল কখনই কম আশা করে না।’

‌‌‘তিনটি ফরম্যাট এই মুহূর্তে আমার জন্য এখন চালিয়ে যাওয়া কঠিন। ব্যস্ত সূচির জন্য শুধু আমার শরীর যে কুলোচ্ছে না, তাই নয়; আমার মনে হচ্ছে আমি আরেকজন খেলোয়াড়ের জায়গা ধরে আছি যে কিনা জস (অধিনায়ক) এবং তার দলকে আরও বেশি দিতে পারবে।’

‘আমি টেস্ট ক্রিকেটে সব কিছু দিতে প্রস্তুত। এই মুহুর্তে, এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে আমার মনে হচ্ছে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটেও পরিপূর্ণ মনোযোগ দিতে পারব’-যোগ করেন স্টোকস।

এমএমআর/এএসএম

ইংল্যান্ড-ক্রিকেট

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন – jagofeature@gmail.com

সর্বশেষ - দেশজুড়ে