বুধবার , ২৬ অক্টোবর ২০২২ | ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

প্লাস্টিকের কৃত্রিম হাতে লুকিয়ে রাখতেন ইয়াবা, ফাঁসলেন অবেশেষে

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ২৬, ২০২২ ৭:৪২ পূর্বাহ্ণ

পুলিশ কর্মকর্তা আজিমুল হক বলেন, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে রানা বলেছেন, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে তাঁর শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে তাঁর বাঁ হাতের সামনের অংশ কেটে ফেলেন চিকিৎসক। তিনি সাত-আট বছর ধরে ইয়াবা কারবারের সঙ্গে জড়িত। এ ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে হাতিরঝিল থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করা হয়েছে।

উপকমিশনার আজিমুল হক বলেন, রানার বিরুদ্ধে শরীয়তপুর জেলার সখিপুর থানায় দুটি মাদক মামলাসহ মোট তিনটি মামলা রয়েছে। তিনি পেশায় অটোরিকশাচালক। অটোরিকশা চালালেও তাঁর মূল পেশা ইয়াবা কারবার। মূলত অটোরিকশা চালিয়ে তিনি ঢাকার বিভিন্ন স্থানে যাত্রী আনা–নেওয়ার পাশাপাশি ইয়াবা বিক্রি করে আসছিলেন। তাঁর বাঁ হাতটি প্লাস্টিকের কৃত্রিম হাত। আর এ অবস্থা থাকার জন্য তেমন কেউ সন্দেহের চোখে দেখেনি। উপরন্তু তিনি সবার সহানুভূতি পেয়েছেন।

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, বিভিন্ন বিনোদন এলাকায় ঘুরতে গিয়ে রানা মাদক বিক্রি করতেন। তিনি ইয়াবাগুলো কৃত্রিম হাতের কনুইয়ের ভেতরে অভিনব কায়দায় নীল রঙের ক্ষুদ্র প্যাকেটে লুকিয়ে রাখতেন। পুলিশ তাঁকে দীর্ঘদিন ধরে অনুসরণ করছিল।

আজিমুল হক বলেন, রানা বেশ কিছুদিন ধরে মিরপুর এলাকায় থাকেন। সাত দিন আগে তিনি বিয়ে করেন। এটি তাঁর দ্বিতীয় বিয়ে। প্রথম স্ত্রী তাঁকে তালাক দিয়েছেন। গতকাল রানা মিরপুর থেকে বাসে করে নতুন বউকে নিয়ে ঘুরতে বেরিয়েছিলেন। রামপুরা এলাকায় এসে বাস থেকে নেমে বউকে বসতে বলে ইয়াবা বেচতে গিয়ে হাতিরঝিল থানার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন রানা। তাঁর সঙ্গে এ কাজে আর কেউ জড়িত আছে কি না, সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সাদা ইয়াবার বিষয়ে উপকমিশনার আজিমুল হক সাংবাদিকদের বলেন, মাদকের ভিন্নতা আনতে এবং চাহিদার কারণেই তাঁরা এটি করতেন। সংবাদ সম্মেলনে তেজগাঁও বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার রুবাইয়াত জামানসহ পুলিশের অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ - দেশজুড়ে