সোমবার , ২১ নভেম্বর ২০২২ | ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উপ-সম্পাদকীয়
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জীবনযাপন
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশগ্রাম
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

ইনভয়েস জালিয়াতি দুই কাস্টমস কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ নিষ্পত্তির নির্দেশ

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
নভেম্বর ২১, ২০২২ ২:২৮ অপরাহ্ণ

ইনভয়েস জালিয়াতির অভিযোগে ঢাকা কাস্টমস হাউজের দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এক আমদানিকারকের করা রিট আবেদন নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যানকে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে ঢাকা কাস্টমস হাউজের কমিশনার এ.কে.এম নুরুল হুদা ও সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শিবলী মাহফুজ হিমেলের (বর্তমানে সিলেটে কর্মরত) বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ নিষ্পত্তি করতে বলেছেন আদালত।

একই সঙ্গে আমদানিকারকের অভিযোগের বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা এবং ব্যর্থতাকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি আমদানিকারকের অভিযোগ নিষ্পত্তি না করাকে কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত এবংবেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্টদের এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে করা এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে সোমবার (২১ নভেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মোকছেদুল ইসলাম ও শেখ মোহাম্মাদ জাকির হোসেন।

রিট আবেদনে দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ইনভয়েস জালিয়াতি করে আমদানিকারক মোহাম্মদ জাহিদুল হকের মালপত্র অবৈধভাবে আটকে রেখে হয়রানির করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

এ বিষয়ে এনবিআর চেয়ারম্যানকে তদন্ত করে দুই কাস্টমস কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি ফৌজদারি আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়ার কথা আবেদন উল্লেখ করা হয়েছে।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, এ.কে.এম নুরুল হুদা এবং সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শিবলী মাহফুজ হিমেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, তারা পরস্পর যোগসাজসে জাহিদুল হকের নামে আমদানিকারকের নামে ভুয়া ইনভয়েস কর্মাশিয়াল ইনভয়েস (যা ইউরো ৮৮৪৭১.২৭ মূল্য লিখে) ভুয়া চালান তৈরি করেন। আমদানিকারক জাহিদুল হককে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে হয়রানি ও তার কাছ থেকে অবৈধ সুবিধা আদায় করতে মিথ্যা নোটিশ জারি করেন তারা।

আমদানিকৃত মালামালসমূহ (কসমেটিকস আইটেম) অবৈধভাবে কয়েকদিন আটক রাখাসহ হয়রানি করার অপচেষ্টার বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক বিভাগীয় ব্যবস্থা ও আইনানুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়ার আবেদন করা হয়।

এ বিষয়ে আমদানিকারক জাহিদুল হক ঢাকা কাস্টমস হাউজে কর্মরত কমিশনার এ.কে.এম নুরুল হুদা ও এ.আর.ও শিবলী মাহফুজ হিমেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে গত ২৪ অক্টোবর আবেদনটি জমা দেন। অভিযোগ নিষ্পত্তি না হলে গত ১ নভেম্বর জাহিদুল হক একটি আইনি নোটিশ পাঠান। এতেও সমাধান না হওয়ায় গত ১৩ নভেম্বর ভুক্তভোগী জাহিদুল হক হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন।

রিটে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান, অর্থ সচিব, ঢাকা কাস্টমস হাউজে কর্মরত কমিশনার একেএম নূরুল হুদা এবং ঢাকা কাস্টমস হাউজের সাবেক সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শিবলী মাহফুজ হিমেলকে (যিনি বর্তমানে সিলেটে কর্মরত) বিবাদী করা হয়।

সর্বশেষ - দেশজুড়ে

আপনার জন্য নির্বাচিত